রিং এর দাম কত বাংলাদেশে

রিং এর দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪

Last Updated:4 months ago

আশা করি সকলে ভালো আছেন। আজকে আমরা বিভিন্ন ধরণের রিং এর দাম সম্পর্কে জানবো। অনেকেই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রিং ব্যবহার করে থাকে। ছেলে মেয়ে উভয়েই রিং ব্যবহার করে থাকে। রিং কম বেশি সকলেই ব্যবহার করে থাকে। তাই রিং এর চাহিদাও অনেক। রিং যেহেতু ওজনে কম তাই রিং বানাতে খরচও কম হয়।খুবি কম অল্প ধাতু ধারা রিং বানানো যায়। সোনা, হীরা, রুপা আরো নানান ধরণের ধাতু দিয়ে রিং বানানো হয়। রিং এর চাহিদা বেশি থাকায় এর দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে অনেকেরই। তাই আজকে আমরা এই পোস্ট এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবো রিং এর দাম বাংলাদেশে কত

রিং এর দাম কত বাংলাদেশে

রিং অনেক ধরণের হয়ে থাকে। ছোট বড় ছেলে মেয়ে প্রায় সকলেই রিং ব্যবহার করে থাকে। অন্যান্য অলংকারের পাশাপাশি রিং এর চাহিদা অনেক। বিয়ের অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন ঘরোয়া অনুষ্ঠানে অনেকেই রিং ব্যবহার করে থাকে। রিং দাম বাংলাদেশে কত নিচে এই সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

বর্তমানে ২২ ক্যারেট একটি গোল্ড রিং এর দাম ৫ হাজার টাকা থেকে ২০ হাজার টাকার উপরে।

বর্তমানে (18k) ডাইমন্ড রিং এর দাম ১৫ বা ১৭ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার উপরে।

এবং বাংলাদেশি সিলভার রিং এর দাম ২০০ থেকে ৫০০ টাকার উপরে। এবং ইন্ডিয়ান জয়পুরি সিলভার রিং এর দাম ৩০০ থেকে ১০০০ টাকার উপরে।


প্লাটিনাম রিং এর দাম কত বাংলাদেশে

সাধারণত মানুষ গোল্ড,ডাইমন্ড, কিংবা সিলভার এর তৈরি রিং বেশি ব্যবহার করে থাকে। তবে গোল্ড এবং সিলভার এর থেকেও দামি একটি ধাতু প্লাটিনাম। প্লাটিনামের রঙ সাধা এটিকে গোল্ড এবং এর থেকেও বেশী দামি বলা হয়। প্লাটিনাম দিয়ে অনেক ধরণের জুয়েলারি তৈরি করা হয়।যেহেতু এই প্লাটিনাম এর চাহিদা অনেক তাই এর দাম সম্পর্কে অনেকেই জানতে চায়। আজকে আমরা জানিয়ে প্লাটিনাম রিং এর দাম বাংলাদেশে কত।

প্রতিবছর সারা বিশ্বে মাত্র একটি দেশেই প্রায় ৮০ শতাংশ প্লাটিনাম উত্তোলন হয়। অর্থাৎ পৃথিবীতে যে পরিমাণ প্লাটিনাম উত্তোলন হয় তার আশি শতাংশ প্লাটিনাম উত্তোলন হয় একটি দেশ থেকে। এই কারণে গহনার ব্যবহার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর দামও আকাশ ছুঁয়েছে। গত এক দশকে যা এক ক্রয় একাউন্টে 500 ডলার থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় এক হাজার তিনশো ডলারে। অর্থাৎ আপনি যদি নিখাদ প্লাটিনাম পেতে চান তাহলে আপনাকে প্রায় ১০ টন আকরিক উত্তোলন করতে হয়।

Platinum Ring Price in Bangladesh Today

Varriation Price

PLATINUM RING ৳ 75,340

PLATINUM RING ৳ 1,37,842

PLATINUM RING ৳ 74,012

PLATINUM RING ৳ 67,992

PLATINUM RING ৳ 87,557

অর্থাৎ প্লাটিনাম রিং এর দাম ৬৭ হাজার থেকে শুরু করে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার উপরে।


ডায়মন্ড রিং এর দাম কত বাংলাদেশে

ডায়মন্ড রিং কেনার ক্ষেত্রে, বাংলাদেশ এমন একটি দেশ নয় যা প্রায়শই মনে আসে। প্রকৃতপক্ষে, বেশিরভাগ মানুষ জেনে অবাক হবেন যে বাংলাদেশে ডায়মন্ড রিং দাম আসলে বেশ যুক্তিসঙ্গত। উদাহরণস্বরূপ, একটি সাধারণ ব্যান্ড শৈলীর আংটি প্রায় ১৫০০০ টাকায় কেনা যায়, যা প্রায় $180 USD এর সমতুল্য। এছাড়াও বাংলাদেশে ১৫ বা ১৭ হাজার টাকা থেকে ১ লাখ টাকারও বেশি দামের ডায়মন্ড রিং কেনা যায়

অবশ্যই, ডায়মন্ড এর গুণমান এবং আকার বৃদ্ধির সাথে সাথে ডায়মন্ড রিং এর দাম বৃদ্ধি পায়; যাইহোক, এমনকি উচ্চ-শেষের রিংগুলি অন্যান্য দেশে খরচের একটি ভগ্নাংশের জন্য কেনা যেতে পারে। এটি একটি বাজেটে বাংলাদেশী বধূদের জন্য ডায়মন্ড রিং একটি জনপ্রিয় পছন্দ করে তোলে।


চাবির রিং এর দাম

চাবির রিং অনেক ধরণের হয়ে থাকে। যেমন কাঠের চাবির রিং মেটেলের তৈরি চাবির রিং চামড়ার তৈরি চাবির রিং আরো অনেক ধরণের হয়ে থাকে। অনেকেই শখ করে বিভিন্ন ডিজাইনের চাবির রিং কিনে থাকে। অনেকেই চাবির রিং এর দাম সম্পর্কে জানতে চায়। নিচে চাবির রিং এর দাম দেওয়া হলো।

অনেক ধরণের অনেক ডিজাইনের চাবির রিং পাওয়া যায়। একেক চাবির রিং এর দাম একেক রকম।যেমনঃ সাধারণ কাঠের সকল ডিজাইনের চাবির রিং এর দাম 100 থেকে 150 টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। মেটেলের তৈরি চাবির রিং এর দাম 200 থেকে 350 টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। তবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে এর দাম কম বেশি হতে পারে।

 

এনগেজমেন্ট রিং এর দাম কত

সাধারণত এনগেজমেন্ট রিং বিয়ের অনুষ্ঠানে ব্যবহার করা হয়। এনগেজমেন্ট  রিং এর চাহিদা অনেক। অনেকেই অনলাইন থেকে এনগেজমেন্ট রিং অর্ডার করে থাকে। তাই অনেকেই এর দাম সম্পর্কে জানতে চায়। আজকে আমরা জানিয়ে দিবো এনগেজমেন্ট রিং এর দাম।

বর্তমানে বাংলাদেশে ২ আনা সোনার নরমাল সাইজের একটি এনগেজমেন্ট রিং এর দাম 8000 থেকে 8500 টাকা। ১ আনা সোনার 15-25 সাইজের একটি এনগেজমেন্ট রিং এর দাম 4000 থেকে 5000 টাকা ।

engagement Diamond Ring (WLR17-12046CS)= ৳ 16,740 Taka

engagement Diamond Ring (WLR18-07164CS)= ৳ 16,901 Taka

engagement Diamond Ring (WLR17-05005CS)= ৳ 16,097 Taka



পিস্টন রিং এর দাম কত

পিস্টন রিং মোটসাইকেলের হয়ে থাকে। সব ধরণের মোটরসাইকেলের মধ্যে পিস্টন রিং হয়ে থাকে।

পিস্টন রিং প্রতিস্থাপনের জন্য গড় খরচ হল $75-$3,500 , যদি আপনি মেকানিক বা DIY-এর কাছে যান তার উপর নির্ভর করে। একটি পিস্টন রিং প্রতিস্থাপনের জন্য মূল্য পরিসীমা সমস্ত গাড়ির প্রকারের জাতীয় গড়ের উপর ভিত্তি করে।


স্বর্ণের রিং এর দাম কত

বর্তমানে সোনার চাহিদা অনেক। বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় সকল দেশে সোনার চাহিদা অনেক কারণ মানুষ আগের তুলনায় বর্তমানে সোনা বেশি ব্যবহার করছে। বিশেষ করে মেয়েরা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সোনার তৈরি অলংকার ব্যবহার করে থাকে। কিন্ত  ছেলে মেয়ে উভয়েই স্বর্ণের রিং ব্যবহার করে থাকে। তাই এর দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে সবার। বর্তমানে ছেলেদের ২ আনা স্বর্ণের রিং এর দাম ৯ হাজার থেকে ৯৫০০ টাকা। এছাড়া মেয়েদের ২ আনা স্বর্ণের রিং এর দাম ৮ হাজার থেকে ৯ হাজার টাকা। ছেলেদের ৩ আনা সোনার ১৫,১৮,২৩,২৫ সাইজের রিং এর দাম ১৪ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা। এবং মেয়েদের ৩ আনা স্বর্ণের ১৫,১৮,২০ সাইজের রিং এর দাম ১২ হাজার থেকে ১৩ হাজার টাকা। স্বর্ণের রিং এর দাম সোনার মানের উপর নির্ভর করে।


হার্টের রিং এর দাম কত

হার্টের রিং হার্টের রোগীদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। তবে বর্তমানে হার্টের রিং এর দাম বেশি হওয়ায় অনেক রোগীরা ব্যবহার করতে পারে না। এখন পর্যন্ত অধিদফতরের কাছে দাম প্রস্তাবকারী চারটি কোম্পানি হলো- কার্ডিয়াক কেয়ার, ভাসটেক লিমিটেড, মেডিগ্রাফিক ট্রেডিং লিমিটেড ও ওরিয়েন্ট এক্সপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড। তাদের প্রস্তাবে নন মেডিকেটেড স্টেন্টের সর্বনিম্ন মূল্য ২৫ হাজার টাকা ও মেডিকেটেড স্টেন্টের মূল্য দেওয়া হয়েছে ৫০ হাজার টাকা। কার্ডিয়াক বা হার্টের রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় করোনারি স্টেন্ট বা রিংয়ের মূল্য সর্বনিম্ন ২৫ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা নির্ধারণ করতে যাচ্ছে জাতীয় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর


আশা করি আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে রিং সম্পর্কে অনেক কিছু বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। বিভিন্ন ধরণের রিং এর দাম এবং রিং সম্পর্কে সকল ধরণের তথ্য আমাদের এই পোস্ট এর মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। পুড়ো পোস্টটি ধৈর্য ধরে পড়ার জন্য ধন্যবাদ।


একই ধরনের পোস্ট

×