মুক্তার দাম কত

মুক্তার দাম কত ২০২৪

Last Updated:3 months ago

মুক্তার উৎপত্তি ঝিনুক থেকে। আর ঝিনুক থাকে জলাশয়ে। বিভিন্ন ধরণের গহনা তৈরির কাজে মুক্তা দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার হয়ে আচ্ছে। চাষের মুক্তার চেয়ে প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া মুক্তার মান তুলনামুলক ভাবে ভালো হয়ে থাকে। প্রধাণত মুক্তা অলংকার তৈরির কাজে ব্যবহৃত হয়। এ ছাড়া মুক্তাচূর্ণ ওষুধ ও প্রসাধন শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হয়। অনেকেই মুক্তার দাম সম্পর্কে জানতে চায় ।গহনা তৈরির পাশাপাশি ওষুধ শিল্পে মুক্তার ব্যবহার দীর্ঘকালের। তাই অনেকেই মুক্তার দাম সম্পর্কে জানার জন্য ইন্টারনেটে খুজে থাকেন মুক্তার দাম কত। আগের তুলনায় বাংলাদেশে মুক্তার চাষ অনেক বেড়েছে। মুক্তার দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ অনেকের তাই আজেক আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে জানিয়ে দিবো মুক্তার দাম কত

মুক্তার দাম কত

মুক্তার দাম সম্পর্কে জানার কৌতুহল অনেকেরি রয়েছে। বাংলাদেশে মুক্তার চাষ বেড়েছে এবং বেড়েছে মুক্তার চাহিদা। মুক্তা সাধারণত ঝিনুক থেকে হয়ে থাকে আর একটি ঝিনুক থেকে প্রায় ১০ থেকে ১২ মুক্তা হয়ে থাকে। প্রতিটি মুক্তার দাম গড়ে ৫০ থেকে ৬০ টাকা।


আসল মুক্তা চেনার উপায়

আজ কাল পাথরের বাজারে নানা রকম রত্ন পাথর পাওয়া যায়। তবে রত্ন পাথরের বাজারে কৃত্তিম মুক্তা এতো বেশি যে আসল মুক্তা চেনা অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে। তাই অনেকেই মুক্তা কিনতে গিয়ে আসল মুক্তা চিনতে পারে না তাই আসল মুক্তা চেনার উপায় অনেকেই জানতে চায়। আজকে আমরা আসল মুক্তা চেনার উপায় জানিয়ে দিবো। ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করলে বোঝা যায় প্রত্যেকটি মুক্তার আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট রয়েছে।বিশেষজ্ঞদের মতে আসল মুক্তা কখনো একটি নির্দিষ্ট আকারের হয় না। আসল মুক্তা আলাদা আলাদা আকারের হয়ে থাকে। নকল মুক্তা সব সময় গরম অনুভূত হয় এবং আসল মুক্তা গরম আবহাওয়াতেও ঠান্ডা অনুভূত হয়।  নকল মুক্তা রত্ন পাথরের উপরে এই সব আঁশ গুলো কিছুই থাকবে না, দেখতে অনেক সুন্দর ও উজ্জ্বল প্রায়শই সাদা বা গোলাপী, নীল, কালো, এবং হলুদ রঙের মুক্তা কম দেখা যায়। তবে মনে রাখবেন বর্তমানে কিন্তু ল্যাব এর মাধ্যমে নকল মুক্তো রত্ন পাথর তৈরি করা হয়ে থাকে। আসল মুক্তা কাঠের উপর ফেললে ধাতপ শব্দ হয়। অনেক দিক বিবেচনা করে যাচাই করে মুক্তা ক্রয় করা উচিত।


বাংলাদেশে মুক্তার দাম কত

বাংলাদেশে অনেকেই রয়েছে যারা মুক্তা দিয়ে তৈরি অলংকার ব্যবহার করে থাকে। মুক্তা দিয়ে অনেক ধরণের গহনা তৈরি করা হয়। আগের তুলনায় বাংলাদেশে মুক্তার চাষ বেড়েছে এবং বেড়েছে মুক্তার চাহিদা। মুক্তা অনেক মূল্যবান একটি রত্ন তাই মুক্তার দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ অনেকের। মুক্তা পাথর এর দাম নিয়ে মানুষের মধ্যে হাজারো কৌতুহল রয়েছে। তাই অনেকেই মুক্তার আসল দাম ইন্টারনেটে খুজে থাকেন। আজেক আমাদের এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন বাংলাদেশে মুক্তার দাম কত। নিচে বাংলাদেশে মুক্তার দাম কত দেওয়া হলো।

বর্তমানে বাংলাদেশে চাষের মুক্তার দাম গড়ে ৫০ থেকে ৬০ টাকা। বাংলাদেশে অরিজিনাল মুক্তার দাম ৪০০/- থেকে ৫০০/- টাকা ক্যারেট থেকে শুরু করে ১০০০/- থেকে ১৫০০/- টাকার উপরে হয়ে থাকে।


একটি মুক্তার দাম কত

মুক্তা একটি মূল্যবান রত্ন। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মুক্তার চাহিদা অনেক। তবে চাষের মুক্তার থেকে প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া মুক্তার গুনগত মান বেশ ভালো। বাজারে বিভিন্ন ধরনের মূল্যবান ধাতব গয়নার দাম বাড়াতে আজকাল অনেকেই ঝুঁকছেন মুক্তার গয়নার প্রতি। মুক্তার গয়না যেমন সাধ্যের মধ্যে তেমনই আভিজাত্যপূর্ণও। একটি ভালো মানের মুক্তা দিয়েও গহনা বানানো যায় তাই অনেকেই একটি মুক্তার দাম জানতে চায়। আজকে আমরা এই পোস্ট এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবো একটি মুক্তার দাম কত।

বর্তমানে বাংলাদেশে চাষের একটি ছোট মুক্তার দাম ৫০ থেকে ৬০ টাকা। এছাড়া বাংলাদেশে অরিজিনাল বাংলাদেশি মুক্তার প্রতি ক্যারেটের মূল্য ৪০০/৫০০ টাকা থেকে শুরু করে ১০০/১৫০০ টাকা পরজন্ত। এবং বর্তমান বাজারে ১৮ থেকে ২৪ মিলিমিটার একটি বড় মুক্তার দাম ৫৪ মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় ৫৮০০ টাকা প্রায়।


বসরাই মুক্তার দাম

বর্তমানে বাংলাদেশে মুক্তার চাহিদা অনেক। আগের তুলনায় মুক্তার দাম বেড়েছে অনেক তবে একেক মুক্তার দাম একেক রকম। বাংলাদেশে বসরাই মুক্তার চাহিদা বড়েছে অনেক এবং এর দাম অন্যান্য সাধারণ মুক্তার থেকে বেশি। বসরাই মুক্তাকে সব থেকে দামি মুক্তা বলা হয়। তাই অনেকেই বসরাই দাম জানার জন্য আগ্রহি। আজকে আমরা এই পোস্ট এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবো বসরাই মুক্তার দাম।

পারস্য উপসাগরে ঝিনুকের মধ্যে যে মুক্তা জন্মায় তাকে বসরাই মুক্তা বলে। বর্তমানে এটিকে সর্বশ্রেষ্ঠ মুক্তা বলা হয়। সাধারণ মুক্তার তুলনায় এর দাম অনেক বেশি। বর্তমান বাজারে অরিজিনাল বসরাই মুক্তা প্রতি ক্যারেটের দাম ৬০০ বা ৮০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকার উপরে হয়ে থাকে। কারণ মুক্তার দাম মুক্তার মানের উপর নির্ভর করে। যেমন একটি ১০ ক্যারেট বসরাই মুক্তার দাম ৬০০০ টাকা থেকে শুরু করে ৮০০০ টাকার উপরে হয়ে থাকে। এছাড়া মায়ানমারের অরিজিনাল বার্মিজ মুক্তার প্রতি ক্যারেটের দাম ৫০০ বা ৬০০ টাকা থেকে শুরু করে ১৫০০ টাকার উপরে হয়ে থাকে। এবং ১০ ক্যারেটের একটি বার্মিজ মুক্তার দাম ৫০০০ টাকা থেকে শুরু করে ১৫০০০ টাকার উপরে হতে পারে।


ঝিনুকের মুক্তার দাম কত

মুক্তা একটি দামি রত্ন। মুক্তা একটি দামি রত্ন ও আভিজাত্যের প্রতীক। প্রধানত মুক্তা অলংকার তৈরিতে ব্যবহৃত হয়, এ ছাড়া মুক্তাচূর্ণ ওষুধ ও প্রসাধন শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহৃত হয়। সাধারণত ঝিনুকের মধ্যে মুক্তা চাষ করা হয়। বাংলাদেশের এই উষ্ণ আবহাওয়া জলাশয় মুক্তা চাষের জন্য উপযোগি। পুকুরে মাছ চাষের পাশাপাশি ঝিনুক এবং ঝিনুকের মধ্যে মুক্তা চাষ করা যায়। বাংলাদেশে ঝিনুকের মুক্তার চাহিদা অনেক তাই অনেকেই ঝিনুকের মুক্তা কেনার জন্য আগ্রহি হয়ে থাকে। নিচে ঝিনুকের মুক্তার দাম কত দেওয়া হলো।

চাষি পর্যায়ে একটি ভালো মানের ইমেজ মুক্তা উৎপাদনে খরচ হয় মাত্র ১৫ থেকে ৩০ টাকা, ১ বছর পর তা ২৫০-৩০০ টাকায় বিক্রি হয়। একটি ঝিনুকের মধ্যে প্রায় ১০ থেকে ১২ টি মুক্তা থাকে। তাহলে একটি ঝিনুকের মুক্তা বিক্রি হয় ৩০০০ থেকে ৩৬০০ টাকার মত।


অরিজিনাল মুক্তার দাম

বর্তমানে বাংলাদেশে চাষের মুক্তার চাহিদা অনেক। কারণ আগের তুলনায় বর্তমানে বাংলাদেশে ভালো মানের অরিজিনাল মুক্তা চাষ করা হয়। তাই অনেকেই অরিজিনাল মুক্তার দাম সম্পর্কে জানতে চায়। মুক্তা পাথরের ভাল কালার, – মুক্তা রত্ন পাথরের ভাল কাটিং বা পলিশ,- ভাল স্থানের পাথর, – এবং ভাল কোয়ালিটির উপর। মুক্তা পাথরের মাঝে অনেক প্রকার রং আছে তবে ভাল কালার এর উপর ভাল দাম নির্ভর করে। চলুন জেনে নেই অরিজিনাল মুক্তার দাম।

বর্তমানে বাংলাদেশে অরিজিনাল বাংলাদেশি মুক্তা পাথরের দাম ৪০০ বা ৫০০ টাকা ক্যারেট থেকে শুরু করে ১০০০/১৫০০ টাকা ক্যারেট উপরে হয়ে থাকে। তবে ভালো মানের বাংলাদেশি মুক্তা আরো বেশি দামে বিক্রি হয়ে থাকে। কারণ মুক্তার দাম মুক্তার মানের উপর নির্ভর করে। যেমন একটি খাটি বাংলাদেশি ১০ ক্যারেট মুক্তা পাথরের দাম ৪০০০ টাকা থেকে শুরু করে ১০০০০ টাকার উপরে হয়ে থাকে।


মুক্তার আংটির দাম

বর্তমানে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মুক্তার তৈরি গহনার চাহিদা অনেক। কারণ আগের তুলনায় বর্তমানে মুক্তা পাথরের অলংকার বেশি তৈরি হয়। অনেকেই শখ করে মুক্তার তৈরি আংটি পড়ে থাকে আবার অনেকেই মুক্তার তৈরি আংটি কিনতে চায় কিন্ত সঠিক দাম না জানার কারণে কিনতে পারে না। নিচে মুক্তার আংটির দাম দেওয়া হলো।

বর্তমানে বাংলাদেশে অরিজিনাল মুক্তা পাথরের তৈরি প্রতি পিস আংটির দাম ৮০০০ টাকা থেকে ১২০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। এই দামে সুন্দর এবং ভালো মানের আংটি পাওয়া যায়। তারও নিম্নে বর্তমান বাজারে ৫০০০ থেকে ৬০০০ টাকার মধ্যে মুক্তার তৈরি আংটি পাওয়া যায়।


মুক্তার মালার দাম

মুক্তার তৈরি গয়নার দাম নির্ভর করে মুক্তার মান, আকার এবং রঙের উপর। মুক্তার তৈরি মালার দাম নির্ভর করে মালার মান এবং ডিজাইনের উপর। তবে, মুক্তার সঙ্গে অন্যান্য পাথর যোগ করে ডিজাইন করে নিলে দামে তারতম্য আসবে। চাষের মুক্তার চেয়ে প্রাকৃতিকভাবে পাওয়ার মুক্তার দাম তুলনামূলকভাবে বেশি হয়ে থাকে। মুক্তার তৈরি একটি মালার দাম হতে পারে ৮০০ থেকে ১০০০০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়াও বড় লহরের মালার দাম ২৫০০ থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত এবং ভারি মালার সেটের দাম ১২০০০ টাকা থেকে ৩০০০০ টাকার পর্যন্ত হয়ে থাকে।


মুক্তার কানের দুলের দাম

বর্তমানে মুক্তা দিয়ে কানের দুলসহ অনেক ধরণের অলংকার তৈরি করা হয়। অনেকেই শুধু কানের দুলের দাম জানতে চায়।সাধারণত কানের দুল মালার সেটের সাথে বিক্রি হয়ে থাকে। তাই অনেকেই মুক্তার কানের দুলের দাম জানে না।

 বর্তমানে বাংলাদেশে মুক্তার তৈরি (14k) কানের দুলের দাম 330 টাকার মত,মুক্তার তৈরি স্টেন্ড (14k) কানের দুলের দাম 250 টাকা। এছাড়া জিরকোনিয়া হ্যালো পার্ল (14k)  স্টেন্ড কানের দুলের দাম 200 টাকা।


মুক্তার নাকফুলের দাম

মেয়েরা বিয়ের অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন ঘরোয়া অনুষ্ঠানে মুক্তার তৈরি নাকফুল ব্যবহার করে থাকে। বর্তমানে মুক্তার তৈরি নাকফুলের চাহিদা অনেক তাই এর দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ অনেকের থাকে। বর্তমানে বাংলাদেশে সোনার উপর মুক্তা বসানো নাকফুলের দাম ৭০০ থেকে ১৩০০ টাকা  পর্যন্ত। এছাড়া রুপার উপর মুক্তা বসানো নাকফুলের দাম ৩০০ থেকে ৮০০ টাকা। এবং এক্সট্রা সিংগেল বড় সাইজের নাকফুলের দাম ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ১৫০ টাকা।


আশা করি আমাদের এই পোস্ট থেকে মুক্তার তৈরি অলংকারের দাম, মুক্তার দাম, মুক্তা চেনার উপায়, বসরাই মুক্তার দাম এবং মুক্তা সম্পর্কে আরো অনেক বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আমাদের পুরো পোস্টটি ধৈর্য ধরে পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

একই ধরনের পোস্ট

×