বিভিন্ন ধরনের মধুর দাম কত

বিভিন্ন ধরনের মধুর দাম কত ২০২৪

Last Updated:3 months ago

আশা করি সকলে ভালো আছেন। আজকে আমরা মধুর দাম কত এ সম্পর্কে আলোচনা করবো। মধু খুবই উপকারি একটি খাদ্য উপাদান। মধু সাস্থ্যর জন্য অনেক উপকারি। মধু কম বেশি প্রায় সকলেই পছন্দ করে থাকে। মধু অনেক ধরণের রোগ সারাতে পারে।মধুতে প্রচুর পরিমাণে ফ্রুক্টজ, মিনারেলস, ভিটামিন ও অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে। এটি শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এছাড়াও মধু ঠান্ডার সমস্যা, গলাব্যথা, খুশখুশে কাশি, সর্দি ইত্যাদি নিরাময় করে। শিশুদের জন্যও মধু অত্যন্ত উপকারী। এটি তাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এছাড়া মধু দেহে পুষ্টি যোগায় ও শক্তিশালী করে। অনেকেই মধুর দাম সম্পর্কে জানতে চায়। আজকে আমরা জানিয়ে দিবো মধুর দাম কত

মধুর দাম কত

মধু সাধারণত শীতাকালীন সময়ে মানুষ বেশি খেয়ে থাকে। মধু শরীরের অনেক উপকার করে। মধুতে অনেক পুষ্টিগুন রয়েছে। মধু খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি শরীরের অনেক রোগ নিরাময়ের কাজ করে। বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক ধরণের খাটি মধু পাওয়া যায়। বর্তমান বাজারে প্রতি কেজি কালো জিরা ফুলের মধুর দাম ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা। এবং প্রতি কেজি লিচু ফুলের মধুর দাম ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা এবং প্রতি কেজি চাকের মধুর দাম  ৭০০ থেকে ৮৫০ টাকার উপরে। তবে স্থান ভেদে এর দাম কম বেশি হতে পারে।


১ কেজি মধুর দাম কত

১ কেজি মধুর দাম ৫০০ থেকে ২০০ টাকা হয়ে থাকে। মধু অনেক উপকারি এবং ঔষুধি একটা খাবার। মধু অনেক ধরণের হয়ে থাকে। মধু খাবার সাথে খাওয়া যায় এবং মধু দিয়ে অনেক ধরণের ওষুধ বানানো হয়। বাংলাদেশে প্রচুর পরিমাণে মধু উৎপাদন করা হয়। প্রায় সব ধরণের মধু বাংলাদেশে পাওয়া যায়। বাংলাদেশের সুন্দর বনের মধু সব থেকে বেশি জনপ্রিয়। অনেকেই জানতে চায় ১ কেজি মধুর দাম কত। চলুন জেনে নেই ১ কেজি মধুর দাম কত।

সুন্দরবনের হাতে চাক কাটা প্রাকৃতিক চাকের মধু (Sundarbans Natural Forest Honey):

৫০০ গ্রাম ৮৫০/- টাকা

১ কেজি ১৬৮০/- টাকা

লিচু ফুলের মধু (Litchi Flower Honey):

৫০০ গ্রাম ৩৫০/- টাকা

১ কেজি ৬৯০/- টাকা

সরিষা ফুলের মধু (Mustard Flower Honey):

৫০০ গ্রাম ২৫০/- টাকা

১ কেজি ৪৯০/- টাকা

সুন্দরবনের বক্সের মধু (Sundarbans Box Honey):

৫০০ গ্রাম ৫৫০/- টাকা

১ কেজি ১০৮০/- টাকা

কালোজিরা ফুলের মধু (Black Seed Flower Honey):

৫০০ গ্রাম ৬০০/- টাকা

১ কেজি ১১৮০/- টাকা

তবে এই মধু বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন দামে বিক্রি হয়ে থাকে।


১০০ গ্রাম মধুর দাম কত

১০০ গ্রাম মধুর দাম ৫০ থেকে ১৬০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। মধু পছন্দ করে না এমন মানুষ খুব কম আছে। প্রাচীন কাল থেকে মানুষ বিভিন্ন খাবার এবং ওষুধ এর সাথে মধু ব্যবহার করে আসছে। মধুতে প্রচুর পরিমাণে ফ্রুক্টজ, মিনারেলস, ভিটামিন ও অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে। এটি শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এছাড়াও মধু ঠান্ডার সমস্যা, গলাব্যথা, খুশখুশে কাশি, সর্দি ইত্যাদি নিরাময় করে। শিশুদের জন্যও মধু অত্যন্ত উপকারী। এটি তাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এছাড়া মধু দেহে পুষ্টি যোগায় ও শক্তিশালী করে।অনেকেই ১০০ গ্রাম মধুর দাম জানতে চায়। চলুন জেনে নেই ১০০ গ্রাম মধুর দাম কত।

সুন্দর বনের প্রাকৃতিক চাকের মধু

১ কেজি ১৬৮০ টাকা

১০০ গ্রাম ১৬০ টাকা

লিচু ফুলের মধু

১ কেজি ৬৯০ টাকা

১০০ গ্রাম ৭০ টাকা

সরিষা ফুলের মধু

১ কেজি ৪৯০ টাকা

১০০ গ্রাম ৫০ টাকা

সুন্দরবনের বক্সের মধু

১ কেজি ১০৮০ টাকা

১০০ গ্রাম ১১০ টাকা

কালোজিরা ফুলের মধু

১ কেজি ১১৮০ টাকা

১০০ গ্রাম ১২০ টাকা

এছাড়া বাংলাদেশে আরো বিভিন্ন দামের মধু পাওয়া যায়। তবে এর দাম একেক জায়গায় একেক রকম।

 

হামদর্দ মধুর দাম কত

বর্তমানে বাংলাদেশে হামদর্দ মধু অনেক জনপ্রিয়। হামদর্দ মধুর বর্তমানে অনেক চাহিদা। হামদর্দ মধু সুন্দরবন থেকে সংগ্রহকৃত ও বৈজ্ঞানিক উপায়ে প্রক্রিয়াজাত। মধু প্রাকৃতিক মহৌষধ ও পুষ্টিদায়ক হিসেবে প্রাচীনকাল হতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। পুষ্টিগুণে ভরা মধুতে উচ্চশক্তির ক্যালরী, পুষ্টি উপাদান যেমন-কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, ভিটামিন, মিনারেল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসহ অন্যান্য উপাদান বিদ্যমান, যা শরীরে শক্তি যোগায়।অনেকেই হামদর্দ মধুর দাম জানতে চায়। চলুন জেনে নেই হামদর্দ মধুর দাম। 

বর্তমান বাজারে ১০০ গ্রাম হামদর্দ মধুর দাম ১২০ থেকে ১৩০ টাকা। এছাড়া ৫০০ গ্রাম হামদর্দ মধুর দাম ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা এবং ১ কেজি হামদর্দ মধুর দাম ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা। তবে এর দাম স্থান ভেদে কম বেশি হতে পারে।


ডাবর হানি মধুর দাম কত

বর্তমানে অন্যান্য মধুর পাশাপাশি মানুষ ডাবর কোম্পানির মধুও ক্রয় করে থাকে। ডাবর একটি ভারতীয় কোম্পানি। ডাবর মধু 100% খাঁটি এবং সম্পূর্ণরূপে ভারতীয় মৌমাছি পালনকারীদের কাছ থেকে পাওয়া যায়। ডাবর মধুর প্রতিটি ব্যাচ মধু পরীক্ষার জন্য FSSAI (ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ড অথরিটি অফ ইন্ডিয়া) দ্বারা বাধ্যতামূলক 22টি প্যারামিটারের সাথে কঠোরভাবে মেনে চলে। বর্তমানে বাংলাদেশেও ডাবর হানি পাওয়া যায়। অনেকেই ডাবর হানির দাম জানতে চায়। চলুন জেনে নেই ডাবর হানি মধুর দাম।

বর্তমান বাজারে ১০০ গ্রাম ডাবর হানি মধুর দাম ১০০ থেকে ১১০ টাকা। এছাড়া ৫০০ গ্রাম ডাবর হানি মধুর দাম ৫০০ থেকে ৫৫০ টাকা। এবং ১ কেজি ডাবর হানি মধুর দাম ১০০০ থেকে ১১০০ টাকা। তবে এটি ইন্ডিয়ান কোম্পানি হওয়ায় এর দাম মাঝে মাঝে কম বেশি হয়ে থাকে।

 

খাঁটি মধুর দাম কত

অনেকেই খাটি মধুর দাম জানতে চায়। চলুন জেনে নেই খাটি মধুর দাম। বর্তমান বাজারে ১ কেজি খাটি চাকের মধুর দাম ১৫০০ থেকে প্রায় ১৭০০ টাকা।এছাড়া ১ কেজি সুন্দরবনের বক্সের মধুর দাম ১০০০ থেকে প্রায় ১১০০ টাকা, ১ কেজি কালোজিরা ফুলের মধুর দাম ১০০০ থেকে প্রায় ১২০০ টাকা, ১ কেজি লিচু ফুলের মধুর দাম ৬০০ থেকে প্রায় ৭০০ টাকা। এবং ১ কেজি সরিষা ফুলের মধুর দাম ৪০০ থেকে প্রায় ৫০০ টাকা। 

মধু হল এক প্রকারের মিষ্টি ও ঘন তরল পদার্থ, যা মৌমাছি ও অন্যান্য পতঙ্গ ফুলের নির্যাস হতে তৈরি করে এবং মৌচাকে সংরক্ষণ করে। বাংলাদেশের সুন্দরবনের মধু স্বাদ, রং, হালকা সুগন্ধ এবং ঔষধিগুণাবলীর জন্য প্রসিদ্ধ। সুন্দরবনের বেশিরভাগ মধু কেওড়া গাছের ফুল থেকে উৎপন্ন। সুন্দরবনের মাওয়ালী সম্প্রদায়ের লোকেরা মৌচাক থেকে মধু সংগ্রহ করে এবং তা বিক্রয় করে জীবন নির্বাহ করে। মধুর অন্য একটি গুণ হল এটি কখনো নষ্ট হয় না৷ হাজার বছরেও মধুর গুণাগুণ নষ্ট হয় না।

কালোজিরা মধুর দাম কত

কালোজিরা ফুলের মধু অনেক উপকারি মধু। অনেকেই কালোজিরা মধুর দাম জানতে চায়। বর্তমান বাজারে ১০০ গ্রাম কালোজিরা ফুলের মধুর দাম ১০০-১২০ টাকা, ৫০০ গ্রাম কালোজিরা মধুর দাম ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। এবং ১ কেজি কালোজিরা ফুলের দাম ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা। তবে এর দাম একেক জায়গায় একেক রকম হতে পারে।
বাংলাদেশে কালোজিরা ফুলের মধু সংগ্রহের সময় সাধারণত ফেব্রুয়ারি মাসে। মাঠে যখন প্রচুর পরিমাণে কালোজিরা ফুল ফুটতে শুরু করে, তখন মৌ চাষিরা তাদের মৌ বাক্স গুলো কালোজিরার বিশাল বড় ক্ষেতের পাশে স্থাপন করে। তারপর ফুল বৃদ্ধি হওয়ার সাথে সাথেই মৌমাছিরা কালোজিরা ফুল থেকে মধু সংগ্রহ করে তাদের মৌ বাক্সে জমা রাখে। এভাবেই তৈরি হয় সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক কালোজিরা ফুলের খাঁটি মধু। এই মধুর অনেক পুষ্টগুন উপাদান রয়েছে। কালোজিরা ফুলের মধু শতভাগ খাটি প্রাকৃতিক মধু।
 

সুন্দরবনের মধুর দাম কত

বাংলাদেশের মধ্যে সব থেকে জনপ্রিয় মধু সুন্দর বনের মধু। বর্তমান বাজারে সুন্দর বনের ১ কেজি চাকের মধুর দাম ১৫০০ থেকে প্রায় ১৭০০ টাকা এবং সুন্দর বনের ১ কেজি বক্সের মধুর দাম ১০০০ থেকে প্রায় ১১০০ টাকা। তবে এর দাম স্থান ভেদে কম বেশি হয়ে থাকে।

ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনের মধু উৎপাদনের সময় সাধারণত মার্চ মাসের শেষের দিক থেকে জুন মাস পর্যন্ত। এই সময়ে সুন্দরবনে অনেক প্রকার ফুল ফুটতে দেখা যায়। প্রকৃতিতে অনেক প্রকার ফুল থাকলেও মৌমাছি প্রধান চারটি ফুল থেকে উল্লেখযোগ্য মধু সংগ্রহ করে। আর তাহলো- খলিশা, গড়ান, কেওড়া ও বাইন। মৌমাছি এই সময়ে সুন্দরবন থেকে যে মধু সংগ্রহ করে, আমরা তাকেই সুন্দরবনের মধু বলে থাকি। সুন্দর বনের মধুকে বাংলাদেশের সব থেকে খাটি এবং জনপ্রিয় মধু বলা হয়। এই মধু প্রায় সকলেই পছন্দ করে। এটি শতভাগ প্রাকৃতিক মধু। 

চাকের মধুর দাম কত

বর্তমানে বাংলাদেশে চাকের মধুর দাম আগের তুলনায় একটু বেশি। বর্তমান বাজারে ১ কেজি প্রাকৃতিক চাকের মধুর দাম ১১০০ থেকে ১২০০ টাকা এবং ১ কেজি সুন্দর বনের চাকের মধুর দাম ১৫০০ থেকে প্রায় ১৭০০ টাকা। অনেকেই চাকের মধু বিক্রির জন্য পাইকারি দামে কিনে থাকে। তবে আপনি যদি বিক্রির জন্য পাইকারি দামে কিনতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে বেশি পরিমাণে কিনতে হবে।এছাড়া পাইকারি দামে কিনলে অনেকটা কম দামে কেনা যায়। বর্তমান বাজারে ১০ কেজি চাকের মধু পাইকারি দামে কিনলে ১২০০০ থেকে ১৫০০০ টাকার মধ্যে কেনা যায় এছাড়া ৫০ কেজি চাকের মধুর পাইকারি দাম ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। তবে বাংলাদেশে খুচরা পাইকারি উভয়েরই চাহিদা অনেক বেশি।
চাকের মধু শতভাগ প্রাকৃতিক হওয়ায় এর মধ্যে অনেক উপকার রয়েছে। হজমের সমস্যা দূর করতে প্রতিদিন সকালে মধু খাওয়ার অভ্যাস করতে পারেন।  মধু পেটের অম্লভাব কমিয়ে হজম প্রক্রিয়ায় সহায়তা করে। হজমের সমস্যা দূর করার জন্য মধু খেতে চাইলে প্রতিবার ভারি খাবার খাওয়ার আগে এক চামচ মধু খেয়ে নিন।  বিশেষ করে সকালে খালি পেটে এক চামচ মধু কিন্তু খুবই উপকারী।প্রাচীনকাল থেকেই ঔষধ হিসেবে মধু ব্যবহৃত হয়ে আসছে। প্রতিদিন সকালে মধু খেলে ওজন কমে। বিশেষ করে সকালে খালি পেটে হালকা গরম জলে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে খেলে তা ওজন কমাতে সাহায্য করে কিছুদিনের মধ্যেই। এছাড়াও এতে লিভার পরিস্কার থাকে।

যষ্টিমধুর দাম কত

অনেকেই যষ্টিমধুর দাম সম্পর্কে জানতে চায়। চলুন জেনে নেই যষ্টিমধুর দাম। বর্তমান বাজারে ১০০ গ্রাম যষ্টিমধুর দাম ৯০ থেকে ১০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায় এবং ১ কেজি যষ্টিমধুর দাম ৯০০ থেকে ১০০০ টাকা। যষ্টিমধুর অনেক উপকার থাকায় এর চাহিদাও অনেক বেশি আর চাহিদা বেশি থাকায় অনেকেই আছে যারা বিক্রি করার জন্য পাইকারি ধরে অনেক বেশি পরিমাণে কিনতে চায়। পাইকারি দামে ৫০ কেজি যষ্টিমধুর দাম ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা এছাড়া পাইকারি দামে ১০০ কেজি যষ্টিমধুর দাম ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকা। তবে এর দাম একেক জায়গায় একেক রকম হতে পারে। 

 যষ্টিমধুর অনেক উপকার রয়েছে। যষ্টিমধু মূলত একটি গাছের শেকড়। আয়ুর্বেদিক শাস্ত্রে যষ্টিমধুর লোকজ ব্যবহারের ব্যাপারটি অনেক পুরোনো। হারবাল ঔষধ তৈরীর অন্যতম এ উপাদানটি স্বাস্থ্যরক্ষা ছাড়াও রূপচর্চায় বহুল ব্যবহৃত। অর্থাৎ আমাদের সুস্থ জীবনযাপনে যষ্টিমধুর ভূমিকা অনেক। এতে আছে ক্যালোরি, ভিটামিন-বি, ম্যাঙ্গানিজ,আয়োডিন, সুগার, ক্রোমিয়াম ও জিঙ্ক এর মতো পুষ্টি উপাদান। যষ্টিমধু  খেলে বেশি যে উপকারটুকু পাবেন তাহলো আমাদের সাড়াদিন চলার পথে শ্বাস প্রশ্বাসের সাথে কন্ঠ নালীতে যে ধুলাবালি গুলো জমা হয় তা পরিস্কার করতে সাহায্যে করে।আর কন্ঠনালীতে অতিরিক্ত ধুলাবালী জমার কারনে যে খুশখুশি কাশি হয় তা নিবারণ করতে সাহায্য করে এই যষ্টিমধু।বুকের ভিতর জমে থাকা পুরোনো সর্দি,কফ,কাশ পরিস্কার করে থাকে। সর্বোপরি নিয়মিত যষ্টিমধু খেলে আপনার কন্ঠনালিটাকে পরিস্কার ও সুন্দররাখে। এছাড়াও এর আরো অনেক উপকার রয়েছে।এর উপকারি উপাদানের জন্য এর চাহিদা অনেক বেশি।

লিচু ফুলের মধুর দাম কত

সাধারণত অন্যান্য মধুর থেকে লিচুর ফুলের মধুর দাম একটু কম হয়ে থাকে। বর্তমান বাজারে কেজি লিচু ফুলের মধুর দাম ১ কেজি লিচু ফুলের মধুর দাম ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা। তবে অনেক বিক্রেতারা পাইকারি দামে কিনে থাকে আর পাইকারি দামে কিনতে হলে আপনাকে অবশ্যই বেশি পরিমাণে কিনতে হবে। তাই অনেকেই জানতে চায় লিচু ফুলের মধু পাইকারি দাম কত। বর্তমান বাজারে ১০ কেজি লিচু ফুলের মধুর পাইকারি দাম ৫০০০ থেকে ৬০০০ টাকা। এছাড়া ৫০ কেজি লিচু ফুলের মধু পাইকারি দাম ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা এবং ১০০ কেজি লিচু ফুলের মধুর পাইকারি দাম ৫০ থেকে ৫৫ হাজার টাকা মধ্যে। তবে এই মধু খেতে অনেক সুস্বাদু হওয়ায় এর চাহিদা অনেক বেশি।
অনেকে মধু বলতে বুঝেন মৌমাছি থেকে প্রাপ্ত মধু নয়তো বানানো মধু। মৌমাছি তার জীবন ধারণের জন্য ফুলের রস (Nectar)এবং ফুলের পরাগ (Pollen) সংগ্রহ করে থাকে। খাঁটি মধুতে তাই বিশেষভাবে পোলেন থাকে, বানানো মধুতে যেটি থাকা সম্ভব নয়। আমরা যে ফুলের প্রধান অংশ থেকে মধু পেয়ে থাকি সেই ফুল অনুসারে মধুর নামকরণ হয়। লিচু ক্ষেতের মাঝে বা তার আশপাশে মধু সংরক্ষণের লক্ষ্যে এক ধরণের বক্স রাখা হয়। মৌমাছি লিচু ফুল থেকে তাদের সংগৃহীত রস সেখানে জমা রাখে। এক পর্যায়ে সেখান থেকে পক্রিয়াজাত করে মধু তুলা হয়। মৌমাছি লিচু ফুলের রস থেকে মধু সংরক্ষণ করে বলে একে লিচু ফুলের মধু বা  Flower Honey বলে। এই মধুর অনেক উপকার এবং শতভাগ প্রাকৃতিক খাটি মধু হওয়ায় এর চাহিদা অনেক বেশি। বেশির ভাগ মানুষ এটি পাইকারি দামে বেশি পরিমাণে কিনে থাকে।

সরিষা ফুলের মধুর দাম কত

বর্তমানে সরিষা ফুলের মধুর চাহিদা কম হওয়ায় এর দামও অনেকটা কম। বর্তমান বাজারে ১ কেজি সরিষা ফুলের মধুর দাম ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। এবং সরিষা ফুলের ৫০০ গ্রাম মধুর দাম ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা। সরিষা ফুলের মধুর দাম কম হওয়ায় অনেকেই এই মধু বেশি পরিমাণে কিনে থাকে। আবার অনেকেই এই মধু বিক্রির জন্য অনেক বেশি পরিমাণে পাইকারি দামে কিনতে চায় এবং অনেকেই সরিষা ফুলের মধুর পাইকারি দাম জানতে চায়। বর্তমান বাজারে পাইকারি দামে ১০ কেজি সরিষা ফুলের মধুর দাম ৪০০০ থেকে ৫০০০ টাকা এছাড়া পাইকারি দামে ৫০ কেজি সরিষা ফুলের মধুর দাম ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা এবং পাইকারি দামে ১০০ কেজি সরিষা ফুলের মধুর দাম ৪৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা। 
মৌমাছি তার জীবন ধারণের জন্য সরিষা ফুলের রস (Nectar)এবং সরিষা ফুলের পরাগ (Pollen) সংগ্রহ করে থাকে। খাঁটি মধুতে তাই বিশেষভাবে পোলেন থাকে ,বানানো মধুতে যেটি থাকা সম্ভব নয়। তবে কি সরিষা ফুলের মধু বানানো বা কৃত্রিম মধু? না, সরিষা ফুলের মধু বানানো মধু নয় । সরিষা ক্ষেতের মাঝে বা তার আশপাশে মধু সংরক্ষণের লক্ষ্যে এক ধরণের বক্স রাখা হয়। মৌমাছি সরিষা ফুল থেকে তাদের সংগৃহীত রস সেখানে জমা রাখে ।এক পর্যায়ে সেখান থেকে পক্রিয়াজাত করে মধু তুলা হয়।  মৌমাছি সরিষা ফুলের রস থেকে মধু সংরক্ষণ করে বলে একে সরিষা ফুলের মধু বা Mustard Flower Honey বলে।  এই মধুতে গ্লুকোজের পরিমান তুলনামুলক বেশি হওয়ায় এই মধু জমে পড়ে। 

খাঁটি মধু চেনার উপায়

আমরা অনেকেই মধু কিনে থাকি কিংবা মধু ব্যবহার করে থাকি কিন্ত বেশির ভাগ মানুষ আসল মধু চিনতে ভুল করি। আপনারা অনেকেই জানতে চান খাঁটি মধু চেনার উপায়। তাই আজকে আমি আপনাদের খাঁটি মধু চেনার ৬ টি উপায় জানিয়ে দিবো।
আসুন জেনে নিই খাঁটি মধু চেনার উপায়-
  1. এক গ্লাস পানিতে এক চামচ পরিমাণ মধু দিন। তার পর আস্তে আস্তে গ্লাসটি নাড়া দিন। মধু পানির সঙ্গে মিশে গেলে নিশ্চিত হবেন সেটা ভেজাল মধু। আর মধু যদি ছোট পিণ্ডের মতো গ্লাসের পানিতে ছড়িয়ে যায়, তা হলে বুঝবেন সেটি খাঁটি মধু।
  2. নকল মধুতে ফেনা হয়। এ ছাড়া একটু টকটক গন্ধ থাকবে এবং গন্ধ তেমন ভালো হয় না।
  3. নকল মধু বেশ পাতলা হয়। স্তরগুলো আলাদা করা যায়। এ ছাড়া খেতে সুস্বাদু হয় না। এ ছাড়া তলানিটা খসখসে থাকে।
  4. সামান্য মধু আঙুলে নিন, এর পুরুত্ব দেখুন। আসল মধু অনেক বেশি আঠালো হবে।
  5. খাঁটি মধু ড্রপ অবস্থায়ই গ্লাসের নিচে চলে যাবে। তার পর আস্তে আস্তে গ্লাসটি নাড়া দিন। মধু পানির সঙ্গে মিশে গেলে নিশ্চিত হবেন সেটি ভেজাল মধু। আর মধু যদি ছোট পিণ্ডের মতো গ্লাসের পানিতে ছড়িয়ে যায়, তা হলে বুঝবেন সেটি খাঁটি মধু।
  6. মধু যদি নকল না হয়, তবে দীর্ঘদিন থাকলেও মধুর নিচে জমাট বাঁধবে না। এ ছাড়া পিঁপড়া ধরবে না।

আশা করি আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে বিভিন্ন ধরণের মধুর দাম এবং মধু সম্পর্কে আরো অনেক কিছু বিস্তারিত জানতে পেড়েছেন। আশা করি আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে। পুড়ো পোস্টটি ধৈর্য ধরে সম্পূর্ণ পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

একই ধরনের পোস্ট

×