মরিয়ম খেজুরের দাম কত

মরিয়ম খেজুরের দাম কত ২০২৪

Last Updated:2 weeks ago

আশা করি সকলে  ভালো আছেন। আজকে আমরা মরিয়ম খেজুরের দাম সম্পর্কে আলোচনা করবো। খেজুর অনেক পুষ্টিগুনাগুন সমৃদ্ধ একটি ফল। বাংলাদেশে অনেক জাতের খেজুর রয়েছে। বাংলাদেশে প্রায় ১০০ জাতের খেজুর পাওয়া যায়। বাংলাদেশে অনেক কম খেজুর উৎপাদন করা হয়। বেশির ভাগ খেজুর সৌদি আরব থেকে কিংবা অন্যান্য দেশ থেকে আমদানি করা হয়ে থাকে। সৌদি আরব অন্যান্য দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশকেও খেজুর রপ্তানি করে থাকে। বাংলাদেশে খেজুরের চাহিদা অনেক বেশি। চাহিদার পাশাপাশি খেজুরের দামও বাংলাদেশে একটু বেশি। অনেকেই জানতে চায় মরিয়ম খেজুরের দাম কত। নিচে এর দাম দেওয়া হলোঃ

মরিয়ম খেজুরের দাম কত

শুকনো খেজুরের মধ্যে মরিয়ম খেজুর সব থেকে ভালো মানের খেজুর। বাংলাদেশের প্রায় সব ফলের দোকানে মরিয়ম খেজুর পাওয়া যায়। এই খেজুরের স্বাদ, মান ও পুষ্টিগুনে তুলনা হয়না। এটি খেতে অনেক সুস্বাদু এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ। এই মরিয়ম খেজুর বাজারে বিভিন্ন ধরনের বিভিন্ন দামে পাওয়া যায়। বর্তমান বাজারে মরিয়ম খেজুরের দাম প্রতি কেজি ৬০০ থেকে ৭০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। কিন্ত অনেক ভাল মানের ১ কেজি মরিয়ম খজুরের দাম ১২০০ থেকে ১৪০০ টাকা। তবে এর দাম একেক জায়গায় একেক রকম হতে পারে।


মরিয়ম খেজুর চেনার উপায়

বর্তমানে বাংলাদেশে মরিয়ম খেজুরের অনেক চাহিদা। বাংলাদেশে মরিয়ম খেজুরএর উৎপাদন প্রায় নেই বললেই চলে। থাকলেও অনেক কম। তবে প্রতি বছর সৌদি আরব থেকে অনেক খেজুর আমদানি করা হয়। মরিয়ম খেজুরে অনেক পুষ্টি রয়েছে যা শরীরের পক্ষে অনেক উপকারি। অনেকেই মরিয়ম খেজুর কিনে থাকে কিন্ত অনেকই আসল মরিয়ম খেজুর চিনতে পারে না। চলুন জেনে নেই মরিয়ম খেজুর চেনার উপায়।

সতেজ খেজুরের চামড়া সাধারণত একটু কুঁচকানো হবে। তবে শক্ত হবে না। উপরের চামড়া হবে চকচকে ও উজ্জল। খেজুরের গায়ে দানাদার কিছুর উপস্থিতি থাকবে না। যদি খেজুরের গায়ে পাউডারজাতীয় কিছুর উপস্থিতি দেখেন তাহলে বুঝবেন সেটি মানহীন কিংবা নিম্নমানের খেজুর।

** মরিয়ম খেজুর চেনার একটি উপায় হলো খেজুরে উপস্থিত মিষ্টির মাত্রা খেয়ে দেখা। খেজুরের প্রাকৃতিকভাবে থাকা মিষ্টি হবে সহনীয় পর্যায়ের। খেজুর খাওয়ার সময় যদি অতিরিক্ত মিষ্টি লাগে তাহলে বুঝতে হবে কৃত্রিম কিছু দেওয়া হয়েছে।

** ভালো খেজুর চেনার আরেকটি কৌশল হলো পিঁপড়া ও মাছির উপস্থিতি লক্ষ্য করা। যদি দেখা যায় খেজুরের সামনে মাছি ও পিঁপড়া ভিড় করছে, তার মানে সেটি ভালো খেজুর না। খেজুরে প্রাকৃতিকভাবে বিদ্যমান যে মিষ্টি থাকে তা কোনোক্রমে পিঁপড়াদের আকৃষ্ট করবে না।


মরিয়ম খেজুর খাওয়ার নিয়ম

পুড়ো বিশ্বব্যাপি খুব জনপ্রিয় একটি খেজুর হলো মরিয়ম খেজুর। বর্তমানে মরিয়ম খেজুরের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এই খেজুরে রয়েছে অনেক উপকারি গুন। এই খেজুর কেউ নিয়মিত খেলে তার শরীরে ভিটামিনের অভাব দেখা দেবে না। অনেকেই জানতে চায় এই মরিয়ম খেজুর খাওয়ার নিয়ম। চলুন জেনে নেই মরিয়ম খেজুর খাওয়ার নিয়ম।

খেজুর খাওয়ার কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই তাই এটি রাতে কিংবা দিনে যেকোনো সময় খাওয়া যেতে পারে। তবে খেজুর খাওয়ার পূর্বে খেজুর ভালোভাবে ধুয়ে খাওয়া উচিত। এছাড়া অনেকেই মনে করেন খেজুর সকালে খেলে বেশি ভালো আবার অনেকেই মনে করে খেজুর রাতে ভিজিয়ে খেলে ভালো উপকার পাওয়া যায়। তবে যেকোনো সময় রাতে কিংবা দিনে খেজুর খাওয়া যেতে পারে। কিন্ত খালি পেটে খেজুর খাওয়াটা বেশি উপকারি।


মরিয়ম খেজুরের উপকারিতা

প্রাচিন কাল থেকে মরিয়ম খেজুর একটি জনপ্রিয় ফল। মরিয়ম খেজুরের নাম শোনেনি এ রকম মানুষ খুব কমই পাওয়া যায়। এ খেজুরের বিভিন্ন উপকারিতার কারনে সকল খেজুরের মধ্যে এ খেজুরটি বেশ জনপ্রিয়। গবেষকদের মতে শুকনো খেজুরের মধ্যে মরিয়ম খেজুর সবচেয়ে বেশি উপকারী ও পুষ্টিগুণ সম্পন্ন। অনেকেই মরিয়ম খেজুরের উপকারিতা সম্পর্কে জানতে চায়।চলুন জেনে নেই মরিয়ম খেজুরের উপকারিতা।

মরিয়ম খেজুর হল পুষ্টির প্রাকৃতিক উৎস। এতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, ভিটামিন কে সহ প্রচুর খাদ্য গুণ রয়েছে যা আপনাকে প্রতিদিনের ক্যালরির চাহিদা পূরন করতে সাহায্য করে। আসুন এর পুষ্টিগুণ গুলো জেনে নেই।

প্রোটিনঃ মরিয়ম খেজুরে থাকা প্রোটিন আপনার পেশী গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

ভিটামিনঃ  মরিয়ম খেজুরে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন রয়েছে। বিশেষ করে ভিটামিন  বি১, বি২, বি৩, বি৫ এবং বি৬। এছাড়াও ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি এর চাহিদা পূরণের সহজ একটি মাধ্যম হচ্ছে মরিয়ম খেজুর।

আয়রনঃ আয়রন মানবদেহের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। এর মাঝে আয়রন ও রয়েছে।

কোলেস্টরেল এবং ফ্যাটঃ মরিয়ম খেজুরে কোন বাড়তি চর্বি এবং কোলেষ্টরেল থাকে না বলে এটি খেল ওজন বেড়ে যাওয়ার কোন সম্ভাবনা থাকে না।

ক্যালসিয়ামঃ মরিয়ম খেজুরে পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে। যা মানুষের হাড় গঠনে সহায়তা করে থাকে।

ফাইবারঃ মরিয়ম খেজুরে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে এবং এক গবেষণায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত খেজুর খান তাদের পেটের ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে।


আশা করি আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে মরিয়ম খেজুরের দাম ও এর উপকারিতা সম্পর্কে জানতে পেড়েছেন। আমাদের এই পোস্টে মরিয়ম খেজুর সম্পর্কে বিস্তারিত দেওয়া আছে। আশা করি আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে। পুড়ো পোস্টটি ধৈর্য ধরে সম্পূর্ণ পড়ার জন্য ধন্যবাদ।


একই ধরনের পোস্ট

×